হোমিওপ্যাথিক মেডিসিন কষ্টিকাম(Causticum)

আমি হোমিওপ্যাথিক মেডিসিন কষ্টিকাম (Causticum)  বলছি।

Take Care
 👼 আমার জন্ম: পোড়া পাথর ও বায়ফসফেট অফ-পটাস এর মিশ্রন হতে।
 👯‍♀️ আমার আরও অনেক নাম আছে: পটাশিয়াম হাইড্রেট, টিংচার  এক্নিস সাইন কালী,রেসাইন কালী৷
👨‍🔬 প্রুভিং: আমাকে  প্রুভিং করেছেন ক্রিশ্চিয়ান ফ্রেডরিক স্যামুয়েল হ্যানিম্যান।
💥 মায়াজম: আমার মধ্যে সোরা(++)আর সাইকোসিস(+++)মায়াজম আছে।
👩‍⚕️ আমি যেসব রোগে প্রয়োগ হই: পক্ষাঘাত, শিশুদের পীড়া, কোষ্ঠবদ্ধতা, অর্শ,কাশি,স্বরভঙ্গ,  চক্ষুর  রোগ,  কর্ণ ও মুখের রোগ, দন্তরোগ, বাত,মৃগীরোগ, আঁচিল,তড়কা,  সন্ন্যাস রোগ, মূত্রতন্ত্রের রোগসহ স্ত্রীরোগে আমি ব্যবহৃত হই।
   👩‍💼 আজ আমি আপনাদেরকে আমার জীবন কাহিনী শোনাব যাতে আপনারা সহজে আমাকে চিনতে পারেন এবং ব্যবহার করতে পারেন…
👶 আমি শিশু অবস্থায় অপুষ্টিতে  ভুগতাম।
💥 যার কারণে আমার দৈহিক বৃদ্ধি হতে সময় লাগে আর দেরিতে হাঁটতে শিখি।  [Slow learning to walk ](Cal. phos)।
 💥  কথা বলার সময় তোতলামির সমস্যা হত। [Stammering]
💥 আমি সন্ধ্যা বেলায় অন্ধকারে বেশি ভয় পাই  তাই একা বিছানায়  যেতাম না৷ [Fear: Alone,Dark,Ghost]
💥 ঘুমের সময় বিছানায় প্রস্রাব করে ফেলি (বিশেষত প্রথম রাতে)। তবে বিছানায় প্রস্রাব শীতকালে বেশি হয় আর গ্রীষ্মকাল আসলে কমে যায়***।
💥 ঘুমের মধ্যে হাত-পা নাড়াচাড়া করি,লাথি মারি।[ Restles limbs;Kicking–During Sleep]
💥সামান্য শব্দে চমকে উঠি যার জন্য ঘুমের মধ্যে মাঝে মাঝে চমকে উঠি।
 💥 আমি দিনে রাতে শুধু কান্না করি সর্বদাই ভীতিপূর্ণ উৎকণ্ঠায় থাকি আর যত সব অবাস্তব চিন্তাধারা মনের মধ্যে ঘুরে বেড়ায় । যার জন্য আমি আমার পোষা বিড়ালটার সাথে বেশিরভাগ সময় কাটাতাম। কিন্তু বিড়ালটা একদিন আমার সামনেই গাড়ীর নিচে চাপা পড়ে অনেক রক্তপাত হয়ে ছটফট করতে করতে মারা যায়।
💥 রক্ত দেখে আমি  ভয় পাই.. 🥺
💥 বিড়ালের কষ্ট দেখে আমার অনেক কষ্ট লাগে [Sympathetic] এবং অনেক কান্না করতে থাকি৷😭[Children Weep from Suffering Of Others]।কান্না থামানোর জন্যে আব্বু আমাকে নিয়ে রেস্টুরেন্টে  নিয়ে গেল এবং কিছু মিষ্টি খেতে দিলো……
❎ কিন্তু আমি মিষ্টি খাই না কারণ মিষ্টি আমার একদম অপছন্দ। [Aversion:Sweets]
♥️ ঝাল এবং বেশি লবন যুক্ত খাদ্য খুব ভালোবাসি। তাই  আব্বু ওয়েটারকে ঝাল টাইপের  খাদ্য আনতে বলল।[Desire: Chilli,Salt]
💥 আমার ক্ষুধা লাগা শর্তেও  খাবার দেখে ও গন্ধে ক্ষুধা চলে গেল।
💥 কেমন যেন পেটের মধ্যে সর্বদা চুল ফুটেছে বলে অনুভূতি হয় তখনও হচ্ছিল  ।
💥 আবার পানি পিপাসা লাগছে কিন্তু পানি খেতে ইচ্ছা করছিল না, যাইহোক অনেক কষ্টে ঝাল মাংস খেলাম
💥  মাংস খাওয়ার পর আমার উদারাময় দেখা দেয়। 😖
💥 বিকাল ও রাতে দাস্ত হচ্ছিল।  দাস্ত হবার পর উৎকণ্ঠা,বুক ধড়ফড়ানি ও মলদ্বারে জ্বালা, চুলকানি শুরু হয়ে যায়  এতে আমার অনেক কষ্ট হয়।😓
🚌 একটু বড় হলে এরপর আমি নিয়মিত স্কুলে যাওয়া শুরু করি, স্কুলে লিখতে বসলে আমার হাতে এত ঘাম হতো যে খাতা ভিজে যেত কিন্তু সেইসাথে আমার..
💥 স্মৃতিশক্তি অনেক দূর্বল কারণ আমি সবসময় অন্যমনস্ক থাকি।
💥 স্কুলের চুপচাপ বসে থাকি…
💥 আমি কোন বিষয়ে ভালো-আশা করতে পারিনা সবকিছুতেই আশাহীন, হতাশ, উদ্বিগ্ন, বিষন্ন আর সব সময় মানসিক দুশ্চিন্তায় ভুগি।😩
  🧍‍♀️ আমি যখন বয়সন্ধিকালে পৌঁছায় হঠাৎ একদিন আমার…
💥 পেটে  মোচরানি ব্যথা হয়, সাথে   পিঠে ব্যথা হয়, আর ব্যথা সামনে ঝুঁকলে   উপশম  হচ্ছিল। তারপর কিছু লক্ষণ দেখে বুঝতে পারি আমার পিরিয়ড হয়েছে। কারন আমি  পিরিয়ড সম্পর্কে আগে থেকেই জেনেছিলাম আম্মুর কাছ থেকে। কিন্তু একটা সমস্যা হল:
💥 পিরিয়ড দিনের বেলায়** বেশি হয় কিন্তু রাতে বন্ধ হয়ে যায়।
💥 কিন্তু লিউকোরিয়া রাত্রে বৃদ্ধি পায়।
💥 পিরিয়ডের সময় অত্যন্ত দুর্বল থাকি।
💥 প্রথম ঋতুর পর যখন যৌবন শুরু হয় আমার অত্যন্ত ঠান্ডা লাগার জন্য মৃগী রোগ দেখা দেয়।
🌘 ধীরে ধীরে স্কুলজীবন শেষ হয় বিদায় অনুষ্ঠানে আমি গান গাইতে চেয়েছিলাম কারণ গান অনেক ভালোবাসি কিন্তু  হঠাৎ আগেরদিন ঠান্ডা লেগে অসুস্থ হয়ে পড়ি কারন…
💥 ঠাণ্ডা আমার একদম সহ্য হয় না।
(ঠান্ডা লাগলেই গলা বসে যায়)
💥 ঠান্ডায় গলার মধ্যে সুড়সুড় করছিল, ব্যথা সাথে  টাটানি ভাব ও জ্বালা  দেখা দেয়।
💥 অনেকবার কাশির পর সামান্য একটু গয়ার কেবল রাতে*** উঠে (তাও গিলে ফেলি) কিন্তু কাশির ধমকে অনেক সময়   অনৈচ্ছিক [Involuntary] ভাবে প্রস্রাব*** ও মল বাহির হচ্ছিল। খেয়াল করলাম ঠান্ডা পানি খেলে আমার কাশি উপশম হয়***(সব ব্যথা ও কস্ট গরমে উপশম কেবল কাশি ঠান্ডা জলপানে উপশম)
💥 সন্ধ্যায় ও বিছানার  গরমে গেলে কাশি বৃদ্ধি পাচ্ছিল।
💥  কাশির সাথে গলার ভেতর মাংস যেন ছিঁড়ে গেছে এমন অনুভূতি ও কোনোকিছু গিলতে তীক্ষ্ণ ব্যথা বোধ হচ্ছিল।
💥 পরের দিন সকালে*** দেখি আমার স্বরভঙ্গ বৃদ্ধি পেয়েছে গলা শুষ্ক ও স্বরও কর্কশ  হয়ে আছে। [Hoarseness]
🥃 আমি এক গ্লাস ঠান্ডা পানি খেয়ে সব বান্ধবীদেরকে ফোন দিয়ে  বলে দিলাম যে আমি আজ অনুষ্ঠানে যেতে পারব না  অসুস্থতার জন্য।
💥  কথাবার্তা বলার জন্য ক্রমশ কর্কশ ভাবটি কমে আসে। কিন্তু চিৎকার করে বা জোরে কথা বলতে পারছিলামনা গলার আওয়াজ একদম বাজখাঁই হয়ে গিয়েছিল…
👩‍🏫 ভার্সিটিতে উঠার পরে সব বন্ধুরা মিলে  কত মজা করত কিন্তু আমি সবসময় চুপচাপ আর বিষন্ন থাকতাম। সবাই নতুন নতুন জায়গায় ঘুরতে যেত কিন্তু আমি যেতাম না
 কারণ…
💥 আমি অচেনা লোক দেখলেই ভয় পাই…
💥 অজানা স্থানে থাকতে চাই না!!
 👸 দেখতে দেখতে আমার বিয়ে হয়ে গেল কিন্তু আমার স্বামী সহবাস একদম যন্ত্রণাদায়ক লাগতো।
🙊 আমার একটা লজ্জাজনক ঘটনা আপনাদের সাথে আজ  শেয়ার করব: বিয়ের পর আমার হাজব্যান্ড আমাকে
🌪️খোলা বাতাসে ঘুরতে নিয়ে যায় মন ভালো করার জন্য তো দুজন ঘুরতে ঘুরতে আমি একসময় রাস্তার মধ্যে অজ্ঞান হয়ে যাই, অজ্ঞান থাকা অবস্থায় প্রস্রাব করে ফেলেছিলাম এরকম মাঝে মাঝে হত খোলা বাতাসে ঘুরলে।
🤰এত কষ্টের পর আমার একটা বাচ্চা এলো পেটে। বাচ্চাটা যখন পৃথিবীর আলো দেখলো তারও আমার মতো সমস্যা ছিল দ্রুতবৃদ্ধি হচ্ছিল না ।😥
🤱  ব্যস্ততার সংসারে সারাদিন কাজ করে ক্লান্ত হয়ে যেতাম আর রাত জেগে  বাচ্চা সামলানো ও উৎকণ্ঠার  ফলে দুধ প্রায় অদৃশ্য হয়ে যেত, বাচ্চাকে স্তন্যদান করতে পারতামনা ঠিকমতো।
 💥 তার মধ্যে আবার স্তনের বোটা ক্ষতযুক্ত ফেটে যেত।
👩‍🦳 যাইহোক বয়স যতবেশী হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের রোগ আমাকে ঘিরে ধরছে।
💥 শরীরের বিভিন্ন জায়গায় যেমন নাকের ডগায় হাতের আঙ্গুলে ও নখের ধারে চোখের পাতায় ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ও সূচালো আঁচিল দেখা দেয়। (warts–Small.Flat;Horney)   আবার, চোখের পাতায় কি যেন হয়েছে চোখ তুলতে পারি না, চোখ ভারী হয়ে থাকে।
💥 বিভিন্ন জায়গায় ক্ষত দেখা দিয়েছে চোখের  কোণে, নাকের পাতায়, দাঁতের মাড়িতে ক্ষত দেখা দিয়েছে,
💥  মারিতে স্কার্ভি রোগ হয়েছে যার জন্য দাঁত মাড়ি থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে রক্তপাত হচ্ছে।
👩‍🦲 একবার আমার মাথার পাশে ও মুখ মন্ডলে উদ্ভেদ দেখা দেয় তার সমগ্র মাথায় ছড়িয়ে পড়ে চাকলার মত। তা কি যেন একটা মলম ব্যবহার করেছিলাম আর সেরে গিয়েছিল। কিন্তু তার পর থেকে আমার বিভিন্ন রোগ দেখা দিচ্ছে।
👵 আমার চোখ কালো,দেহের গঠন হালকা পাতলা দেখতে কিন্ত-
সংসার সামলানো আর অজানা উৎকন্ঠা আমাকে অস্হির করে রাখতো তার জন্য চেহারার সেই কোমলতা আর নেই।যেন ফুলদানী তে সাজানো বাসি ফুল…
 💥 আমি যত বৃদ্ধ হতে থাকি। হাত পায়ে খিল ধরতে থাকে।
 💥হাত পায়ের মাংসপেশি টেনে ধরে যার জন্য সোজা করতে পারি না।
💥 হাত-পা অসংযুক্ত হয়ে পড়ে  যার জন্য একটি জিনিস  ধরে ফেলে দেই। এক স্থানে পা দিতে গিয়ে অন্য এক স্থানে পা দিয়ে ফেলি।
💥হাঁটাচলা করতে পারিনা   ঠিকমত । চলাফেরা করার সময়ও ফোটা ফোটা প্রস্রাব বের হয়। (ঠিকমত প্রসাব নির্গত হয় না) [Paralysis of the neck of the bladder]
হাঁচি কাশির সাথে
অনৈচ্ছিক [Involuntary]
 মল ও প্রসাব নির্গত হয়ে যায়, এর সাথে  পুরনো বাত তো আছেই | এমনকি হাসলে ও প্রসাব নির্গত হয়…
[Urination Involuntary-Laughing  Agg.]
🦵বাত আক্রান্ত স্থান খুব শক্ত ও অসার হয়ে আছে। মনে হয় যেন মাংসপেশিগুলো একত্রে বাধা আছে ।গলা কোমর হাত-পা শক্ত ও আরষ্ঠ ভাব দেখা দেয়। বাতযুক্ত স্থানে ব্যথা। (গরমে উপশম)
  🧓🏻একবার আমার জ্বর হয় তখন বক্ষ পৃষ্ঠদেশে অনেক বড় বড়  ফোস্কাৱ মত বের হয়েছিল ।  কিছুদিন পর পরীক্ষা করে দেখি টাইফয়েড হয়েছে…
🤶🏻এখন আমি বয়সের ভারে জবুথুবু…
💥 কোস্ঠবদ্ধতার  সময় কেবল মাএ দাড়িয়ে মলত্যাগ করতে পারি [Stool only when Standing]
 💥 কানের ভিতরে  শোঁ শোঁ শব্দ হয়,নিজের কথা নিজেই প্রতিধ্বনি শুনি…
 💥বহুদিন আগের আগুনে পোড়া যায়গায় এখনো বেদনা হয়…
  💥ছেলেটা বাসায় রাতে দেরি করে ফিরলে-
 ও না আসা অবদি ঘুমাতে পারিনা….ক্রমাগত বারান্দায় পায়চারি করতে থাকি….মনে হয় না জানি কি হয়…আজকাল তো সময় ভালো না.
💥এতকিছুর পরেও ভিজা স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়ায় আমার সমস্ত রোগলক্ষন কমে যায়***
💗  লেখাটা বড় লিখে ফেলেছি। এত কষ্ট করে যখন এতোটুকু পরে এসেছেন  তার জন্য অনেক ধন্যবাদ।তাহলে আমার সম্পর্কে আর একটু কষ্ট করে জেনে নিন-
⭐ গলা ও চর্মের উপরে আমার প্রধান ক্রিয়া ৷
⭐শরীরের ডানদিকে অধিক ক্রিয়া প্রকাশ করি ৷
👩‍🦼 আমার এত অসুস্থতার মধ্যে চর্মরোগ,মনকষ্ট, ঠান্ডা লাগা, বাতজনিত, টাইফয়েড এর জন্য যেকোনো কারণে একপাশে পক্ষাঘাত(বিশেষত ডানপাশে) দেখা দিলে  তখন  আমাকে ব্যবহার করতে পারেন।আমি স্থানীয় বা আংশিক পক্ষাঘাত [seventh cranial  Nerve ]যেমন মুখের জিহ্বার, মূত্রনালীর,মূএথলীর,পদদ্বয়ের,গলার পেশীর, প্রভৃতি পক্ষাঘাতে আমি কার্যকরী।
 ◀️  আমার বৃদ্ধি: শুষ্ক ঠাণ্ডা হাওয়ায়, ঠান্ডা  পানিতে গোসল, পরিষ্কার আবহাওয়া  দিনে,কোন প্রকার প্রচণ্ড তাপ আবহাওয়ায়,সন্ধ্যাকালে, কফিপানে, আহারের পর, অগ্নিদগ্ধের পর, কর্মকালীন।
 ▶️  আমার উপশম:  বর্ষার ভেজা ঠান্ডায়,গরমের দিনে ঠান্ডা পানিতে,উষ্ণ বায়ুতে, দ্বিপ্রহরের রাত্রিতে, মৃদু সঞ্চালনে।
❎   আমার ক্রিয়ানাশক: এসাফিউটিডা(Asafoetida),ডালকামাররা(Dulcamara),গুয়েকাম(Guaiacum),নাক্স ভোম(Nux Vom)।
⏸️ আমার সম্পূরক: কার্বোভেজ(Carbo Veg),কলোসিন্হ(Colocynthis) ।
⬇️     আমার পরে যাদের ব্যবহার করবেন: কেলি আয়োড(Kali iod), লাইকো(Lycopodium),নাক্স ভোম(Nux),পালস(Pulsatilla), রাসটক্স(Rhus Tox)।
Take Care

Homeopathic Medicine Causticum

1 thought on “হোমিওপ্যাথিক মেডিসিন কষ্টিকাম(Causticum)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *